শিরোনাম
বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০২:২৬ পূর্বাহ্ন

গ্রেপ্তার হয়ে সুশান্তকে ভালোবাসার মূল্য দিলাম-রিয়া।

রিপোটারের নাম / ১১৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

বিনোদন ডেস্কঃ

অবশেষে সুশান্ত ইস্যুতে মাদককাণ্ডে আজ দুপুরে গ্রেপ্তার হয়েছে সুশান্তের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তী। রবিবার থেকে রিয়াকে জেরা শুরু করে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। রবি, সোম পর পর দু’দিন জেরার পর, আজ মঙ্গলবারও ডাকা হয় রিয়াকে। কিছুক্ষণ জেরার পরই আজ দুপুরে রিয়াকে গ্রেফতার করে এনসিবি।

নারকোটিক্স ড্রাগস অ্যান্ড সাইকোট্রপিক সাবস্ট্যান্স আইনের ৬৭ নম্বর ধারায় রিয়া চক্রবর্তী তার দোষ স্বীকার করে নিয়েছেন বলে সাংবাদিকদেরে জানিয়েছেন এনসিবির ডেপুটি ডিরেক্টর কেপিএস মালহোত্র। এদিকে গ্রেফতার হওয়ার পর মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন রিয়া। তার পরিবারও এই ঘটনায় বিপর্যস্ত হয়ে আছে বলে খবর জানাচ্ছে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো।

তারা জানিয়েছে রিয়া গ্রেপ্তার হওয়ার পরই তার মন্তব্যে বলেছেন, গ্রেপ্তার হয়ে সুশান্তকে ভালোবাসার মূল্য দিলাম।’

জানা গেছে, রিয়াকে আজ সূর্যাস্তের আগেই মেডিকেল টেস্ট করা হবে। তার জন্যে বিশেষ একটি জেল এর ব্যবস্থা করা হয়েছে এনসিবি দপ্তরেই। রিয়ার গ্রেফতারের খবরে সুশান্ত সিং রাজপুতের দিদি টুইট করেছেন, ঈশ্বর আমাদের সঙ্গে আছেন।

মাদক যোগ নিয়ে রবিবার থেকে রিয়াকে টানা জেরা করছিল এনসিবি। বার বার প্রশ্নের মুখে পড়ে সোমবার এনসিবির সামনে রিয়া জানান, ‘আমি যা করেছি, তা সবই সুশান্তের জন্য।’ তার পরেও আজ ফের রিয়াকে জেরার জন্য এনসিবির সদর দপ্তরে ডাকা হয়। দুপুরের দিকে সেখানেই গ্রেফতার করা হয় তাকে।

গত ১৪ জুন মুম্বইয়ের বান্দ্রার বাড়ি থেকে সুশান্ত সিংহ রাজপুতের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। শুরুতে মুম্বাই পুলিশের হাতেই তদন্তভার ছিল। পরে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে তা কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআইয়ের হাতে ওঠে। সেই মামলায় রিয়ার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট থেকে মাদকযোগের কথা উঠে এলে, আলাদা করে তদন্ত শুরু করে এনসিবি।

রিয়া ছাড়াও গত সপ্তাহে দফায় দফায় জেরার পর শুক্রবার রিয়ার ভাই শৌভিক ও সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডা ও সুশান্তের হাউজ ম্যানেজার দীপেশকেও গ্রেপ্তার করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত ১৪ জুন মুম্বাইয়ের বান্দ্রার বাড়ি থেকে সুশান্ত সিং রাজপুতের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। শুরুতে মুম্বাই পুলিশের হাতেই তদন্তভার ছিল। পরে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে তা কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআইয়ের হাতে ওঠে। সেই মামলায় রিয়ার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট থেকে মাদকযোগের কথা উঠে এলে, আলাদা করে তদন্ত শুরু করে এনসিবি।


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

আমাদের পরিবার

প্রকাশনা সম্পাদক :আব্দুছ ছালাম সবুজ প্রধান সম্পাদক:মোহাম্মদ আজাহারুল হক সম্পাদক:এস, এম, মোমতাজ উদ্দিন যুগ্ম সম্পাদক :রোবেল মাহমুদ বার্তা সম্পাদক:ফরিদুল আলম সজীব মফস্বল সম্পাদক:সারুয়ার ফরাজী নির্বাহী সম্পাদক:আনিন চিপ রিপোটার:লিয়াকত আলী